রাশিয়া সিরিয়ায় কেন !!!

ঈদ না কিছু না শালা (শ্যালক) কেন আমায় সেলাম করল?
রশিয়ার হঠাৎ সিরিয়াতে হামলা আমাদের অনেকের কাছে হয়ত এই প্রবাদ বাক্যের মত মনে হয়েছে।
অবশ্যই ব্যাপারটি এত সরল সমীকরনের নয়।
রশিয়া কেন মধ্য প্রাচ্যের এই অন্ধকার খেলায় নিজেকে জোরালো?

সে কি নিজে নিজেই জড়িয়েছে নাকি কেও চেয়েছে? তাহলে তারা কারা, তারা কে? আসলে কি চায় তারা?
আমাদের কাছে আপাত দৃষ্টিতে মনে হচ্ছে যে আমেরিকা এবং ন্যাটো রাশিয়ার এই হস্তক্ষেপ চায়নি। কিন্তু পর্দার আড়ালে কি আসলেই এমন কিছু ঘটেছে নাকি অন্য কোন নতুন খেলা?
***
রাশিয়ার বলশেভিক বিপ্লবের সাথে যে জায়নবাদ এবং ইয়াহুদিদের সম্পৃক্ততা ছিল এটা আমেরিকান যুদ্ধ কমিশন কর্তৃক ১৯১৯ সালে প্রস্তুত কৃত, আমেরিকায় অবস্থিত ফরাসী কর্তৃকপক্ষকে দেওয়া একটি রিপোর্ট থেকে জানা যায়।
স্মারকলিপির প্রথম অংশে ইয়াহুদি জায়নিস্ট সংগঠনের ১০ নম্বর ধারায় এই কথা বলা হয়েছে। এই গোপন ধারাটি হল
‘’সৃষ্টি কর্তা আপনাদেরকে বাছাই কৃত বান্দা হিসাবে এই দুনিয়াতে পাঠিয়েছেন এবং এই দুনিয়ার রাজত্ব আপনাদেরকে দান দিয়েছেন। অন্যদেরকে দুর্বল করে দিয়ে মূলত আমাদেরকে শক্তিশালী করেছেন। এবং আমরা এখন দুনিয়ার একছত্র অধিপতি। এই মূলনীতির উপর ভিত্তি করে নতুন দুনিয়া প্রতিষ্ঠা সময়ের ব্যাপার মাত্র।‘’
১৮৯৭ সালের গোপন সম্মেলনে গৃহীত ১০ নম্বর ধারাটির শেষাংশে বলা হয়েছে,
‘’১৯১৬ সালে ফেব্রুয়ারি মাসে রাশিয়াতে একটি বিপ্লব করার জন্য সর্বাত্মক প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।‘’
***********
* ’’এই ভাবে উপরে বর্ণিত সময়ের এক বছর পর রাশিয়ার বিপ্লব যে অনুষ্ঠিত হয়েছিল সেটার জন্য যে সকল প্রস্তুতি ইয়াহুদিদের পক্ষ থেকেই নেওয়া হয়েছিল এই ব্যাপারে সন্দেহ না থাকার ই কথা। এই বিপ্লব সম্পূর্ণ ভাবে তাদের মদদে এবং তাদের প্রচেষ্টার ফলেই হয়েছিল।‘’
*১৯১৭ সালের এপ্রিল মাসে Jacob Schiff এক সম্মেলনে খুলাখুলি ভাবে বলেছিলেন যে, রুশ বিপ্লব মূলত তাদের অর্থায়নে এবং তার সমর্থনের কারনেই সামনের দিকে আগাচ্ছে।
*১৯১৭ সালের এক বসন্তে Jacob Schiff ত্রকচি নামক এক ইয়াহুদিকে রুশ বিপ্লবের জন্য অর্থ সাহায্য দিতে শুরু করে। নিউ ইয়র্ক থেকে প্রকাশিত Forward নামক এক ইয়াহুদি বলশেভিক পত্রিকাও একই উদ্দেশ্যে তাদেরকে অর্থ সাহায্য দেয়।
*স্টকহোমে অবস্থিত ইয়াহুদি ব্যাংক Max Warburg এবং সেখানে তোলা চাঁদাও (Troçki ) ত্রচকির হাতে তুলে দেওয়া হয়। Max Warburg এবং অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাগণ জার্মানিতে তাদের প্রতিষ্ঠিত Vestfalya এবং Rönan নামক প্রতিষ্ঠান থেকে অর্থ নিয়ে আসত। Troçki (ত্রচকি)র সাথে এদের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল। স্টকহোমে অবস্থিত এই ব্যাংকের মালিক ইয়াহুদি Olef Aschberg এর মেয়ের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। এই ভাবে মাল্টি বিলিয়নার ইয়াহুদিদের সাথে বিত্তহীন ইয়াহুদিরা এই ভাবে তাদের সম্পর্ক গড়ে।
*১৯১৭ সালের অকবর মাসে রুশ বিপ্লব অনুষ্ঠিত হয়। এই সময়ে সোভিয়েত সংগঠনের নেতারা জনগনের ইচ্ছায় হস্তক্ষেপ করে। এই সংগঠনের নেতাদের নাম সমূহ নিচে তুলে ধরা হল। যা রীতিমত বিস্ময়কর। 12202005_904422259611057_1776378541_n

উপরের এই তালিকা থেকে হয়ত আমরা অবাক হয়েছি। কিন্তু এটাই বাস্তব। এই তালিকা দেখেই হয়ত আমরা অনেক কিছু বুঝতে পারছি।
১। আজকের রাশিয়ার গোঁড়া পত্তন কারী সোভিয়েত রাশিয়া গঠনে সব চেয়ে প্রভাবশালী শক্তি ছিল ইয়াহুদি এবং জায়নবাদিরা।
২। সিরিয়াতে রাশিয়ার বিমান হামলা, সেখানে শত শত নিরস্র মানুষ নিহত হওয়া এবং তুরস্কের আকাশসীমা লঙ্ঘনের মধ্য দিয়ে মধ্য প্রাচ্যের অন্ধকার এই খেলায় শরিক হওয়া কেবল মাত্র ইসরাইলের স্বার্থই রক্ষা হয়েছে। বৃহৎ ইসরাইল রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা ক্ষেত্রে রাশিয়াকে অংশীদার বানানো এবং জলন্ত অগ্নিতে কেরসিন ঢেলে দেওয়া মূলত ইসরাইলেরই একটি চাওয়া।
৩। মধ্য পাচ্যের বিষফোড়া ইসরাইলের দ্বারা মধ্যপ্রাচ্যে যে গন হত্যা চলছে রাশিয়া এঁর বিরুদ্ধে আজ পর্যন্ত কোন কথা বলেছে এই কথা কেও বলতে পারবে না।
৪। হঠাত করেই এই খেলায় অংশগ্রহণ এবং কেও কিছু বুঝার আগেই যে রাশিয়ার আক্রমন এটা নিঃসন্দেহে আকস্মিক কোন ঘটনা নয়। রাশিয়ার এই হামলা সম্পর্কে যে আমেরিকা জানে না এটা কক্ষনোই সম্ভব নয়। অতীতের মত এখনো তারা Divide and Rule এই নীতিতেই এগিয়ে চলছে। এখানে মূলত আমেরিকা সরাসরি ভাবে সামরিক অভিযান পরিচালনা না করে রাশিয়াকে দিয়ে প্রক্সি হামলা করিয়ে তারা তাদের মিত্র ইসরাইলের স্বার্থ উদ্ধার করতে চায়।

তুরস্কের বিশিষ্ট কলামিস্ট আদনান অকসুজ এর লেখা
অনুবাদ: বুরহান উদ্দিন

Leave a Reply