9 Responses

  1. ABUSAIF
    ABUSAIF at |

    আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ….

    মাজলুম ও জালিম- উভয়পক্ষই প্রকৃত সত্য জানে!!
    মাজলুমের ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ ও আল্লাহর সাহায্য ছাড়া এ জুলুম শেষ হবার নয়!!

    Reply
  2. Ahmed
    Ahmed at |

    আপনার লিখার অবতারনাই ভুল। ইসলাম শব্দটি সালামুন থেকে আসে নাই, আসছে সিলমুন থেকে। ইসলাম শব্দের অর্থ শান্তি না, ইসলাম শব্দের অর্থ আত্মসমর্পণ।
    প্রথমে ইসলাম নিয়ে ভালভাবে পরালিখা করেন, ইসলাম কে জানেন, তারপর ইসলাম নিয়ে কথা বলেন…
    Advocate হইলেই কেউ ইসলাম বিশারদ হয়ে যায়না।

    Reply
    1. এড. মোঃ সলীমুল্লাহ খান
      এড. মোঃ সলীমুল্লাহ খান at |

      আমি বিশারদ দাবী করতেই পারিনা, তবে আপনি বুঝতে ভুল করেছেন, মুসলিম” শব্দের অর্থ আত্মসমর্পনকারী, ইসলাম শাব্দিক অর্থ শান্তি এর অন্য একটি অর্থ আত্মসমর্পন হতে পারে, আপনি আমার শুদ্ধ গুলো গ্রহন করবেন, ভুল গুলো বাদ দিবেন, আর বিশারদ হওয়ার প্রশ্নই উঠেনা, আপনি পেশা নিয়ে কথা বলেছেন, লেখা আমার নেশা, পেশা আলাদা ব্যাপার, আশা করি বুঝতে পেরেছেন, ধন্যবাদ

      Reply
      1. Ahmed
        Ahmed at |

        Islam shobder ortho “shanti” eta jodi proof korte paren, taile apni ja bolen ta e korbo….
        Salam ortho shanti, Islam ortho shanti na… Islam ortho attoshomorpon, ar muslim ortho attoshomorponkari…

        Reply
        1. এড. মোঃ সলীমুল্লাহ খান
          এড. মোঃ সলীমুল্লাহ খান at |

          এবার জেনে নিন, দীর্ঘসময় পড়া মনে রাখার সহজ উপায়!!ছাত্রছাত্রীদের পড়াশুনার সময়ের সবচেয়ে বড় সমস্যা হল, পড়া মনে রাখতে না পারা। সাধারণত অতিরিক্ত লেখাপড়ার চাপে তাদের এই সমস্যা হয়ে থাকে। দেখা যায় যে অনেক পরিশ্রম করে পড়া মুখস্তকরে পরীক্ষা দিতে গেলেন, কিন্তু পরীক্ষা হলে গিয়ে সব বেমালুম ভুলে বসেছেন। তাই এই সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পাবার উপায় হিসেবে স্মৃতিশক্তি বাড়াতে হবে। আসুন জেনে নিই সহজ কয়েকটি উপায়, যা স্মৃতিশক্তি বাড়াতে এবং পড়া অনেকক্ষণ মনে রাখতে সাহায্য করবে।মনোযোগ তৈরি করাঃমানুষের সমস্ত ক্রিয়াই নিয়ন্ত্রণ করে মন। আর মনটিকেই প্রথমত বুঝিয়ে নিতে হবে যে এখন আমি এই কাজটি করব এবং এই কাজটি আমাকে মনে রাখতে হবে। তাই পড়ার বিষয়ে আগে মনোযোগ বসিয়ে নিতে হবে। যেপড়াটি পড়বেন সেই পড়াটিতে মনোযোগ স্থাপন করতে হবে।মেডিটেশন করে নিনঃপড়াশোনায় মনোযোগ পুরোপুরি বসাতে চাইলে ব্রেন থেকে যাবতীয় যত চিন্তা তা মুক্ত করতে হবে। অর্থাৎ ব্রেনটিকে রিফ্রেশ করতে হবে। এর জন্য মেডিটেশন সবচেয়ে উপযোগী। মেডিটেশন ব্রেনকে সতেজও চিন্তামুক্ত করে তোলে এবং এর কাজ করার ক্ষমতাকে হাজার গুল বাড়িয়ে দেয়। এর জন্য স্মৃতিশক্তি বাড়িয়ে তুলতে মেডিটেশন করে নিতে পারেন।জটিল টপিকগুলো বারবার পড়ুনঃমনে রাখার জন্য ছোটবেলা থেকেই বারবার পড়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে বলেন বাবা মায়েরা। একটি বিষয়ে অনেক জটিল টপিক থাকতে পারে। এই জটিল টপিকগুলো একবার পড়ে মনে রাখা সম্ভব না। তাই এই ধরনের জটিল টপিকগুলো বারবার পড়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। প্রয়োজনে অবসর সময়ে তা আওড়াতে পারেন। এতে বিষয়টি মনে থাকবে বেশি।বাস্তবের সাথে মিলিয়ে পড়ুনঃকোনো কিছু মনে রাখার জন্য তা যদি বাস্তব কোনো বিষয়ের সাথে মিলিয়ে পড়া যায় তাহলে তা অনেক বেশি মনে থাকে। এজন্য যতটা সম্ভব বাস্তব কোনো বিষয়কে উদাহরণ হিসেবে ধওে পড়াটি মুখস্ত করুন।পড়াটি কাউকে বোঝানঃস্মৃতিশক্তি ধরে রাখতে বা পড়াটি মনে রাখতে সবচেয়ে উপযোগী মাধ্যম হল যে পড়াটি আপনি পড়েছেন তাঅন্যকে যদি বুঝিয়ে বলা। এমন অবস্থাতে আপনি যদি কাউকে কোনো জটিল বিষয় বুঝিয়ে বলেন যেমনটা টিচাররা স্টুডেন্টদের বুঝিয়ে থাকেন তাহলে বিষয়টি আপনার ব্রেনে এমনভাবে গেঁথে যাবে যা কখনই আপনি ভুলবেন না।এভাবেই পড়তে পারলে অবশ্যই এই

          Reply
        2. এড. মোঃ সলীমুল্লাহ খান
          এড. মোঃ সলীমুল্লাহ খান at |

          আপনার সঠিক হইতেই পারে কারন আমিতো বলেছিই আমি বিশারদ নই, শুইন্যা মুসলিম, তবে আমি ইসলামের পক্ষেই মতামত দিয়েছি, ভুলটা মানার দরকার নাই, আমার নিয়তে কোন ঘাটতি নেই যা জেনেছি তা লিখি যা মন থেকে লিখি

          Reply
  3. Ahmed
    Ahmed at |

    Ejonnei bollam
    Islam niye poralikha kore tarpor likhen
    Naile Hashor e jobaab dite hobe
    Chotobelay Islam niye ja porsi shob e vuul chilo

    Reply
  4. Ahmed
    Ahmed at |

    Jajakallah vai!
    Better hoy jene likhle….
    Allah apnar ilm briddhi korun…

    Reply
  5. এড. মোঃ সলীমুল্লাহ খান
    এড. মোঃ সলীমুল্লাহ খান at |

    #বিপ্লব স্পন্দিত বুকে মনে হয় আমিই………..
    -এড. মোঃ সলীমুল্লাহ খান
    ==========যতোবার হত্যা করোনা কেন জেগে উঠবো আবার, জেগে উঠে জেনে রেখ লিখবো নতুন ইতিহাস,
    জেনে রেখো, যারা হত্যাকারী/অত্যাচারী তারা চিরকালই থাকে ভীরু এবং হতাশ”
    বিপ্লবী মোরা,সত্যের সৈনিক, মুক্তির শ্লোগান লিখি তাই শতাব্দীর দেয়ালে,
    আমরাই জয়ী হবো, যতোই আমাদেরকে তোমরা দেখ হেয়ালের খেয়ালে”
    যারা বলেছিলো জন্মেছে কুলাঙ্গার, বাচবেনা,
    বেচে উঠায় তারাই বলেছিলো বাচলেও কিছুই করতে পারবেনা,
    কিছু একটা করার পর বলেছিলো টিকবেনা,
    বিজয়ের মালা ছিনিয়ে আনার পরও বলেছিলো ফুল গুলো সব বাশি,
    তাদের মতো লোকদের এড়িয়ে চললেই হাসবে সবাই সাফল্যের হাসি”
    #উৎসর্গ
    ” বাংলাদেশের মেহনতী জনতাকে”

    Reply

Leave a Reply